মাত্র আট বছর বয়সেই ১০৬ ভাষায় লিখতে ও পড়তে পারে এই বালক

মাত্র আটবছর বয়সের বালক চেন্নাইয়ের নিয়াল থগুলুভা। যদিও বালক না বলে বিস্ময় বালক শব্দটাই যায় তার সাথে।ধারালো মগজাস্ত্রের অধিকারী এই বালক কেবল আট বছর বয়সেই লিখতে ও পড়তে পারে ১০৬টি ভাষা।

শুধু জানা নয়, ইন্টারনেট আর ইউটিউবের সাহায্যে ইতিমধ্যেই ১০৬টি ভাষায় নিয়াল কথা বলতে পারে গড়গড়িয়ে। লিখতেও পারে নিজের মাতৃভাষার মতোই। উচ্চারণে যাতে কোনও খুঁত না থাকে তার জন্য বাড়িতে আলাদা করে মা-বাবার কাছে ভাষাগুলো রপ্ত করছে সে।

কী করে ভাষার প্রতি এত টান জন্মাল খুদে ভাষাবিদের? নিয়ালের কথায়,‘আমি নিজেই জানি না। ধীরে ধীরে নেট আর ইউটিউব ঘাঁটতে ঘাঁটতই বোধহয় আগ্রহী হলাম ভাষা সম্বন্ধে।এভাবেই একসময় দেখলাম, ১০৬টি ভাষা শিখে ফেলেছি।এর মধ্যে ১০ ভাষা ঠোঁটস্থ।আপাতত আরও পাঁচটি ভাষা শিখছি।’

বাবা শঙ্কর নারায়ণন যদিও ছেলের এই বিরল প্রতিভার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন ঈশ্বরকে। একইসঙ্গে তাঁর বক্তব্য, ‘গত বছর থেকে হঠাত করেই ছেলের মধ্যে এই আগ্রহ জন্মাল। প্রথম প্রথম ভাবতাম, ছেলেমানুষী ঝোঁক।নিজে থেকে হয়েছে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে নিজে থেকেই হয়তো কমে যাবে। পরে দেখি, আগ্রহ কমার বদলে বাড়ছে! তখন সাপোর্ট করে ওর পাশে দাঁড়ালাম। এক বছরের মধ্যে এত অল্পবয়সে একের পর এক ভাষা শিখতে শিখতে আজ ১০৬টি ভাষা ছেলের দখলে।’

স্কুলের পড়াশোনার পাশাপাশি আপাতত ভাষা নিয়েই মজে আছে নিয়াল। পৃথিবীর সমস্ত ভাষা জানতে চায় সে। জলের মতো করে কণ্ঠবন্দি করতে চায় তাদের। নতুন করে আবিষ্কার করতে চায় অবলুপ্ত ভাষাও। নিয়াল এখন তার পড়শিদের ঈর্ষার কারণ। মা-বাবা, সমস্ত পরিজন, দেশের-দশের গর্ব।

Check Also

ভারতে কোভিড হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ড: নিহত ৫

ঢাকাঃ ভারতে একটি কোভিড হাসপাতালে আগুন লেগে ৫ রোগীর মৃত্যু হয়েছে। দগ্ধ হয়েছেন আরও অনেকেই। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *