বাম জোটের মিছিলে পুলিশের লাঠিপেটা: প্রতিবাদে কমিউনিস্ট লীগের নিন্দা

৩০ ডিসেম্বর এর ভোট ডাকাতির অভিযোগে ও এর প্রতিবাদে বাম গণতান্ত্রিক জোটের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে পুুলিশের হামলা ও গ্রেপ্তারের ঘটনার তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও দোষীদের শাস্তির দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশের ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক কমরেড মোশাররফ হোসেন নাননু ।

সোমবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে কমরেড মোশাররফ হোসেন নাননু বলেন,  গত বছর ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট ডাকাতির মাধ্যমে নজিরবিহীনভাবে আগের রাতে ব্যালটে সীল মেরে বাক্স ভরে রেখে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী জোট ক্ষমতা দখল করেছে। বাম গণতান্ত্রিক জোট এ দিনকে ভোটডাকাতির এক বছরে কালো দিবস হিসেবে পালনের ঘোষণা দিয়ে দেশব্যাপী জোটের শরীক দলের অফিসে কালো পতাকা উত্তোলন, কালো ব্যাজ ধারণ এবং কালো পতাকাসহকারে জেলায় জেলায় ডিসি অফিসের সামনে এবং ঢাকায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে বিক্ষোভ মিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করে।

কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশ শেষে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে কালোপতাকা সহকারে বিক্ষোভ মিছিলটি মৎস্য ভবনের সামনে পৌঁছালে পুলিশ বাধা দেয় এবং শান্তিপূর্ণ মিছিলে বিনা উসকানীতে হামলা চালিয়ে প্রায় অর্ধশতাধিক নেতা-কর্মীকে গুরুতর আহত করে এবং ৫ জনকে গ্রেপ্তার করে।

বিবৃতিতে কমরেড মোশাররফ হোসেন নাননু বলেন, বর্তমান সরকার যেহেতু জনগণের ভোটে ক্ষমতায় আসেনি ফলে জনগণের যে কোন আন্দোলনকে ভয় পায়, তাই বাম গণতান্ত্রিক জোটের শান্তিপূর্ণ মিছিলে ন্যাক্কারজনক হামলা চালিয়েছে।

বিবৃতিতে তিনি ভোট ডাকাতির এই সরকারকে ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য করতে গণআন্দোলনকে তীব্রতর করে গণঅভ্যুত্থান সংগঠিত করার জন্য সর্বস্তরের জনগণ ও দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।

Check Also

দেশে এখন ভয়াবহ অবস্থা বিরাজমান: ডা. জাফরুল্লাহ

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, ‘দেশে এখন ভয়াবহ অবস্থা বিরাজমান। কভিড-১৯ …