বাংলাদেশের নদ-নদী

Discuss Today

বাংলাদেশের নদ-নদী

প্রশ্ন: বাংলাদেশের নদ-নদীর সংখ্যা কত?

উঃ ৭০০ এর অধিক (সূত্র: মাধ্যমিক ভূগােল)

(বি.দ্র: অপশনে ৭০০ না থাকলে উত্তর হবে ২৩০ টি)।

প্রশ্ন: বাংলাদেশে প্রবাহিত আন্তর্জাতিক নদীর সংখ্যা কত?

উঃ ৫৭ টি। (যৌথ নদী কমিশন)

প্রশ্ন: বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে অভিন্ন নদী কয়টি?

উঃ ৫৪টি [যৌথ নদী কমিশন)।

প্রশ্ন: বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যে অভিন্ন নদী কয়টি?

উঃ ৩টি।

প্রশ্ন: বাংলাদেশ ও ভারত যৌথ নদী কমিশন গঠিত হয় কবে?

উঃ ১৯৭২ সালে।

প্রশ্ন: বাংলাদেশের জলসীমায় উৎপত্তি ও সমাপ্ত নদীর নাম কী?

উঃ হালদা নদী।

প্রশ্ন: বাংলাদেশের কোন নদীকে ‘চিরযৌবনা নদী বলা?

উঃ মেঘনা।

প্রশ্ন: বাংলাদেশের দীর্ঘতম নদী/প্রশস্ততম নদী/গভীরতম কোনটি?

উঃ মেঘনা।

প্রশ্ন: বাংলাদেশের খরস্রোতা নদী কোনটি?

উঃ কর্ণফুলী।
(নদীর ক্ষেত্রে এটিই ব্যতিক্রম আর অন্যসব বিষয়ে যেমন: বৃহত্তম/দীর্ঘতম/প্রশস্ততম নদীর ক্ষেত্রে উত্তর হবে মেঘনা)

প্রশ্ন: বাংলাদেশের কোন নদীতে জোয়ার-ভাটা হয় না?

উঃ কুমিল্লার গােমতী নদী।

প্রশ্ন: বাংলাদেশের দীর্ঘতম নদ কোনটি?

উঃ ব্রহ্মপুত্র।

প্রশ্ন: ব্রহ্মপুত্র নদের উৎপত্তি কোথায়?

উঃ হিমালয়ের মানস সরােবর।

প্রশ্ন:কোন কোন দেশের উপর দিয়ে ব্রহ্মপুত্র প্রবাহিত?

উঃ চীন, ভারত ও বাংলাদেশ।

প্রশ্ন: কোন জেলার উপর দিয়ে ব্রহ্মপুত্র বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে?

উঃ কুড়িগ্রাম।

প্রশ্ন: বাংলাদেশ-মায়ানমারকে বিভক্তকারী নদীর নাম কি? এর দৈর্ঘ্য কত?

উঃ নাফ নদী। দৈর্ঘ্য ৫৬ কি.মি.।

প্রশ্ন: বাংলাদেশ-ভারতকে বিভক্তকারী নদীর নাম কী?

উঃ হাড়িয়াভাঙ্গা।

প্রশ্ন: মেঘনার উৎপত্তিস্থল কোথায়?

উঃ মিজোরামের লুসাই পাহাড়ে।

প্রশ্ন: উৎপত্তিস্থলে মেঘনার নাম কী?

উঃ বরাক নদী ।

প্রশ্ন: মেঘনা কী কী নামে বিভক্ত হয়েছে?

উঃ সুরমা ও কুশিয়ারা।

প্রশ্ন: সুরমা ও কুশিয়ারা পুনরায় মিলিত হয়ে কী নাম ধারণ করেছে?

উঃ কালনি।

প্রশ্ন: কালনি কোথায় পুনরায় মেঘনা নাম ধারণ করেছে?

উঃ ভৈরব বাজারের নিকট।

প্রশ্ন: কর্ণফুলী নদী কোন দিক দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে?

উঃ পার্বত্য চট্টগ্রাম দিয়ে।

প্রশ্ন: কর্ণফুলী নদী কোথায় পতিত হয়েছে?

উঃ বঙ্গোপসাগর।

প্রশ্ন: এক কিউসেক বলতে কি বাঝায়?

উঃ প্রতি সেকেন্ডে এক ঘনফুট পানির প্রবাহ।

প্রশ্ন: ঢাকা শহরকে রক্ষার জন্য বুড়ীগঙ্গা নদীর তীরে যে বাঁধ দেয়া হয় তার নাম কি?

উঃ বাকল্যান্ড বাঁধ।

প্রশ্ন: বাংলাদেশের কৃত্রিম হ্রদ কোনটি?

উঃ রাঙ্গামাটি জেলার কাপ্তাই হ্রদ।

প্রশ্ন: কাপ্তাই জলবিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ করা হয়?

উঃ ১৯৬২ সালে।

প্রশ্ন: কোন নদী তিব্বতের মানস সরোবর হতে উৎপন্ন হয়েছে?

উঃ ব্রহ্মপুত্র।

প্রশ্ন: ব্রহ্মপুত্র নদ কোন জেলার ভেতর দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে?

উঃ কুড়িগ্রাম।

প্রশ্ন: ব্রহ্মপুত্র নদের প্রধান শাখার নাম কী?

উঃ যমুনা।

প্রশ্ন: ভারত ফারাক্কা বাঁধ নির্মাণ করেছেন কোন নদীর উপর?

উঃ গঙ্গা।

প্রশ্ন: পানি বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য কাপ্তাই বাঁধ দেয়া হয়েছে কোন নদীর উপরে?

উঃ কর্ণফুলী।

প্রশ্ন: গঙ্গা নদীর উৎপত্তিস্থল কোথায়?

উঃ হিমালয় পর্বতের গঙ্গোত্রী হিমবাহ।

প্রশ্ন: পদ্মা নদীর ভারতীয় অংশের নাম কী?

উঃ গঙ্গা।

প্রশ্ন: তিস্তা নদীর উৎপত্তিস্থল কোথায়?

উঃ ভারতের সিকিমের পার্বত্য অঞ্চল থেকে

প্রশ্ন: তিস্তা নদী বাংলাদেশে কোন জেলার মধ্য দিয়ে প্রবেশ করেছে?

উঃ নীলফামারী জেলা।
(আর তিস্তা বাঁধ অবস্থিত লালমনিরহাট জেলায়)

প্রশ্ন: পদ্মা নদী বাংলাদেশে কোন জেলার মধ্য দিয়ে প্রবেশ করেছে?

উঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা।

প্রশ্ন: বাংলাদেশ হতে ভারতে প্রবেশকারী একমাত্র নদীর নাম কী?

উঃ কুলিখ নদী।

প্রশ্ন: বাংলাদেশ হতে ভারতে গিয়ে পুনরায় বাংলাদেশে প্রবেশকারী নদীর নাম কী?

উঃ আত্রাই ও মহানন্দা।

প্রশ্ন: সিকিম ও বাংলাদেশের উত্তরবঙ্গের জীবনরেখা বা Life-line” বলা হয় কোন নদীকে?

উঃ তিস্তা নদীকে।

প্রশ্ন: তিস্তা নদীর দৈর্ঘ্য কত কিলােমিটার?

উঃ ৩১৫ কিলােমিটার। এর মধ্যে বাংলাদেশের অংশের পরিমাণ ১১৫ কিলােমিটার।

প্রশ্ন: বাংলাদেশের প্রধান নদী বন্দর?

উঃ নারায়ণগঞ্জ ।

প্রশ্ন: বাংলাদেশের নদী গবেষণা ইনস্টিটিউট কোথায়?

উঃ ফরিদপুর।

প্রশ্ন: কোন সালে ফারাক্কা ব্যারেজের নির্মাণ কাজ শুরু হয়?

উঃ ১৯৬১ সালে।

প্রশ্ন: কোন সাল থেকে ফারাক্কা বাঁধ চালু হয়?

উঃ ১৯৭৫ সালে।

প্রশ্ন: ফারাক্কা বাঁধ নিয়ে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে আলােচনা করা হয় কোন সালে?

উঃ ১৯৭৬ সালে।

প্রশ্ন: বাংলাদেশের সীমানা থেকে কত কিলােমিটার দূরে ফারাক্কা বাঁধ অবস্থিত?

উঃ ১৬.৫ কিলােমিটার দূরে।

নোট মোস্তাফিজার মোস্তাক

Check Also

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সংক্ষিপ্ত জীবনী

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সংক্ষিপ্ত জীবনী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনী থেকে কেবল পরীক্ষায় আসার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *