প্রাণ প্রকৃতি রক্ষার দাবিতে তেল-গ্যাস কমিটির জাতীয় কনভেশন শুক্রবার

জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় প্রাণ প্রকৃতি বিনাশী সকল প্রকল্প বাতিলসহ ৫ দফা দাবিতে  ৬ ডিসেম্বর শুক্রবার ঢাকায় জাতীয় কনভেনশন করবে তেল-গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি।

আজ বুধবার আমাদের বাণী’তে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তি এ তথ্য জানা যায়।

তেল-গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির আহ্বায়ক প্রকৌশলী শেখ মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ্ ও সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ যৌথ বিবৃতিতে বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনে সবচাইতে ঝুঁকির মধ্যে থাকা দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ একটি। এই ঝুঁকি মোকাবিলায় একদিকে যেমন বিশ্বে জীবাশ্ম জ্বালানি ব্যবহার হ্রাসে বাংলাদেশের জোর ভ’মিকা পালন দরকার তেমনি দেশের ভেতর উন্নয়ন পরিকল্পনাও এমনভাবে সাজানো দরকার যাতে আমরা নিজেদের বিপদ কমাতে পারি, নিরাপদ উন্নত ভবিষ্যৎ গড়তে পারি। কিন্তু সরকার উন্নয়নের নামে দেশি বিদেশি গোষ্ঠী স্বার্থ রক্ষায় যেভাবে একের পর এক প্রাণ প্রকৃতি বিনাশী প্রকল্প গ্রহণ করছে তাতে শুধু জলবায়ু পরিবর্তনের বিপদ বাড়বে না, দেশের ভেতর প্রাণ প্রকৃতি মানুষ এক ভয়ংকর পরিস্থিতির মধ্যে পড়বে। প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও জলবায়ু পরিবর্তনের হুমকির মুখে বাংলাদেশ অরক্ষিত হয়ে যাবে।

বিবৃতে তারা বলেন,  গত ১০ বছরে এসবের বিরুদ্ধে বহুরকম তথ্যপ্রমাণ হাজির করা সত্ত্বেও শুধু সুন্দরবন বিনাশী রামপাল নয়, পুরো উপকূল জুড়ে করা হচ্ছে একের পর এক কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র। এসব প্রকল্পে যুক্ত ভারত ও চীন নিজ নিজ দেশে কয়লা থেকে দূরে সরে যাচ্ছে আর তাদের পরিত্যক্ত কয়লা বিদ্যুতের ভাগাড় তৈরি করছে বাংলাদেশের মতো দেশে। বাংলাদেশের বিভিন্ন কয়লা খনি নিয়েও চলছে চক্রান্ত। ফুলবাড়ীতে গণঅভ্যুত্থানের মধ্য দিয়ে বিতাড়িত এশিয়া এনার্জি সরকারের প্রশ্রয়ে অবৈধভাবে লন্ডনে শেয়ার ব্যবসা করছে, চীনা কোম্পানির সাথে চুক্তি করছে, মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে ফুলবাড়ী আন্দোলনের সংগঠকদের। বাংলাদেশের মতো ঘন জনবসতি, পানি ও আবাদী জমির উপর বিপুল ভাবে নির্ভরশীল একটি দেশে পারমাণবিক বিদ্যুতের ঝুঁকি ও বিপদ যে কোনো দেশের চাইতে অনেক বেশি। এই সত্য অগ্রাহ্য করে রূপপুরে বাংলাদেশের সবচাইতে ব্যয়বহুল পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প করা হচ্ছে। দেশের বিদ্যুৎ খাতে কয়লা, এলএনজি ও পারমাণবিক নির্ভরতাসহ ব্যয়বহুল পথ গ্রহণ ও দুর্নীতির বোঝা জনগণের উপর চাপাতে বারবার বাড়ানো হচ্ছে গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম।

এই পরিপ্রেক্ষিতে সুন্দরবন ও উপকূলবিনাশী কয়লা বিদ্যুত বন্ধ, গ্যাস রপ্তানিমুখি ‘পিএসসি ২০১৯’ বাতিল এবং সুলভ-টেকসই-পরিবেশবান্ধব বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য জাতীয় কমিটির বিকল্প মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নসহ ৫ দফা দাবিতে আগামী ৬ ডিসেম্বর ঢাকায় প্রাণ প্রকৃতি ও মানুষ রক্ষায় জাতীয় কনভেনশন অনুষ্ঠিত হবে। আমরা দেশবাসীকে এই কনভেনশন সফল করার আহবান জানাই।

Check Also

দেশে এখন ভয়াবহ অবস্থা বিরাজমান: ডা. জাফরুল্লাহ

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, ‘দেশে এখন ভয়াবহ অবস্থা বিরাজমান। কভিড-১৯ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *