প্রাচীন বাংলার ইতিহাস

প্রাচীন বাংলার ইতিহাস

গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নঃ

প্রশ্ন: বাঙালি জাতির পরিচয় কী?

উঃ শংকর জাতি হিসেবে।

প্রশ্ন: বাঙালি জাতি মূলত কোন শাখার বংশধর বলে পরিচিত?

উঃ আর্য শাখার।

প্রশ্ন: নৃতাত্ত্বিকভাবে বাঙালি জাতি কোন নরগােষ্ঠীর অন্তর্ভুক্ত?

উঃ আদি-অস্ট্রেলীয়

প্রশ্ন: বিশ্বে মােট ৪টি প্রধান নরগােষ্ঠী কি কি?

উঃ নিগ্রীয়, মঙ্গোলীয়, ককেশীয় ও অস্ট্রেলীয়। বাংলাদেশে বসবাসকারী উপজাতির বড় অংশ নৃতাত্ত্বিকভাবে মঙ্গোলীয় এবং মধ্যপ্রাচ্যের বেশিরভাগ মানুষ নৃতাত্ত্বিকভাবে ককেশীয়।

প্রশ্ন: বাঙালিদের/বাংলাদেশিদের উপর কোন নরগােষ্ঠীর প্রভাব সবচেয়ে বেশি?

উঃ আদি-অস্ট্রেলীয়।

প্রশ্ন: বাঙালি জাতির প্রধান অংশ কোন জনগােষ্ঠীর অন্তর্ভুক্ত?

উঃ অস্ট্রিক।

প্রশ্ন: বাঙালি জাতির প্রধান অংশ কোন জনগােষ্ঠী থেকে গড়ে ওঠেছে?

উঃ অস্ট্রিক

প্রশ্ন: বাংলার আদি জনগােষ্ঠীর ভাষা কী ছিল?

উঃ অস্ট্রিক।

প্রশ্ন: বাংলার প্রাচীন জনগােষ্ঠীর মধ্যে কোন ভাষাভাষীর লােক বেশি ছিল?

উঃ অস্ট্রিক।

প্রশ্ন: বাংলার প্রাচীন জাতি কোনটি?

উঃ দ্রাবিড়।
( বাংলার প্রাচীন জাতি/জনগােষ্ঠীর দ্রাবিড়; কিন্তু বাঙালি জাতির উৎপত্তি হয়েছিল অস্ট্রিক থেকে, যাদের ভাষাও ছিল অস্ট্রিক)

প্রশ্ন: আর্যদের আগমনের পূর্বে এ দেশে কাদের বসবাস ছিল?

উঃ অনার্যদের।

প্রশ্ন: আর্যদের আগমনের পূর্বে এ দেশে কাদের রাজত্ব ছিল?

উঃ মৌর্যদের।

প্রশ্ন: আর্যরা কবে বাংলাদেশে আগমন করে?

উঃ খ্রিস্টপূর্ব ২০০০ অব্দে।

প্রশ্ন: আর্যরা কোন জায়গা থেকে বাংলায় আগমন করেন?

উঃ ইউরাল পবর্তের দক্ষিণে তৃণভূমি অঞ্চলে; অর্থাৎ, বর্তমান ইরান থেকে।

প্রশ্ন: আর্যরা কোন দেশের অধিবাসী?

উঃ বর্তমান ইরানের।

প্রশ্ন: আর্যদের আদি বাসস্থান কোথায় ছিল?

উঃ দক্ষিণ-পূর্ব ইউরােপ।

প্রশ্ন: আর্যরা উপমহাদেশের কোথায় প্রথম বসতি স্থাপন করে?

উঃ উত্তর-পশ্চিম সীমান্ত অঞ্চল ও পাঞ্জাবে ।

প্রশ্ন: ‘আর্য যুগকে কী বলা হয়?

উঃ বৈদিক যুগ।

প্রশ্ন: আর্যদের ধর্মগ্রন্থের নাম কী?

উঃ বেদ।

প্রশ্ন: বৈদিক যুগের শিক্ষার ভাষা কী ছিল?

উঃ সংস্কৃত।

প্রশ্ন: দেশবাচক নাম হিসেবে ‘বঙ্গ’ শব্দের ব্যবহার কখন প্রয়ােগ হয়?

উঃ মুসলিম শাসনামলের প্রথম দিকে ।

প্রশ্ন: সম্রাট আকবরের আমলে সমগ্র বঙ্গদেশ কি নামে পরিচিতি ছিল?

উঃ ‘সুবহ-ই-বাঙ্গালাহ নামে।

প্রশ্ন: কোন গ্রন্থে বঙ্গ শব্দের প্রথম ব্যবহার হয়েছে?

উঃ ‘ঐতরেয় আরণ্যক গ্রন্থে।

প্রশ্ন: কোন গ্রন্থে দেশবাচক বঙ্গ শব্দের প্রথম ব্যবহার হয়েছে?

উঃ ‘আইন-ই-আকবরী গ্রন্থে।

প্রশ্ন: ‘আইন-ই-আকবরী’ গ্রন্থের রচয়িতা কে?

উঃ আবুল ফজল

প্রশ্ন: প্রাচীন বাংলার নির্ভরযােগ্য ইতিহাস সম্পর্কে জানার নীহাররঞ্জন রায় কর্তৃক রচিত প্রামাণ্য গ্রন্থটির নাম কী?

উঃ বাঙালির ইতিহাস।

প্রশ্ন: সমগ্র বাংলাদেশ ‘বঙ্গ নামে ঐক্যবদ্ধ হয় কোন আমলে?

উঃ পাঠান আমলে।

প্রশ্ন: এই অঞ্চলের নাম ‘বাংলা নামকরণ করেন কে?

উঃ সুলতান শামসুদ্দীন ইলিয়াস শাহ।

প্রশ্ন: কার আমল থেকে বাংলাকে সাম্রাজ্যভুক্ত করা হয়?

উঃ মৌর্যযুগে।

প্রশ্ন: কখন থেকে বাংলার স্বাধীন রাজ্যের গােড়াপত্তন হয়?

উঃ মৌর্যযুগে।

প্রশ্ন: প্রাচীন বাংলার প্রথম স্বাধীন নরপতি কে ছিলেন?

উঃ রাজা শশাঙ্ক।

প্রশ্ন: কাকে দিয়ে বাংলার স্বাধীনতা সূচিত হয়?

উঃ ফখরুদ্দীন মােবারক শাহ।

প্রশ্ন: পূর্ব বঙ্গের প্রথম স্বাধীন নরপতি কে?

উঃ ফখরুদ্দীন মােবারক শাহ।

প্রশ্ন: বাংলার প্রাচীন যুগের শেষ রাজা কে ছিলেন?

উঃ রাজা লক্ষ্মণ সেন।

প্রশ্ন: বাংলার শেষ হিন্দু রাজা কে ছিলেন?

উঃ রাজা লক্ষ্মণ সেন।

প্রশ্ন: বাংলায় সর্বপ্রথম কে নৌবাহিনী গড়ে তােলেন?

উঃ গিয়াসউদ্দিন আজম শাহ।

প্রশ্ন: ‘বঙ্গ’ জনগােষ্ঠী মানুষের বাসভূমি কোথায় ছিল?

উঃ ভাগীরথী নদীর পূর্ব তীর থেকে আসামের পশ্চিমাঞ্চল পর্যন্ত

প্রশ্ন: চীনা পরিব্রাজক ‘হিউয়েন সাং’ কবে বাংলায় আগমন করে?

উঃ সপ্তম শতকে।

প্রশ্ন: বাংলার শাসন পদ্ধতি সুস্পষ্ট বিবরণ পাওয়া যায় কোন যুগে?

উঃ গুপ্ত যুগে।

প্রশ্ন: কোন সম্রাটের আমলে এ দেশে বৌদ্ধ ধর্মের প্রসার ঘটে?

উঃ সম্রাট অশােকের আমলে।

প্রশ্ন: প্রাচীন সভ্যতার অভ্যুদয় ঘটে কোথায়?

উঃ এশিয়া ও আফ্রিকা মহাদেশ।

প্রশ্ন: সিন্ধু সভ্যতা কোন যুগের?

উঃ তাম্র যুগের।

প্রশ্ন: উপমহাদেশের সবচেয়ে প্রাচীন সভ্যতা সিন্ধু সভ্যতা কখন আবিষ্কার করা হয়?

উঃ ১৯২২ সালে।

প্রশ্ন: আরবরা কখন সিন্ধু আক্রমণ করেন?

উঃ ৭১২ খ্রিস্টাব্দে।

প্রশ্ন: গৌতম বুদ্ধের জন্মস্থান কোথায়?

উঃ লুম্বিনী (নেপাল)।

মৌর্য সাম্রাজ্য

প্রশ্ন: ভারতীয় উপমহাদেশের প্রথম সাম্রাজ্যের নাম কী?

উঃ মৌর্য সাম্রাজ্য।

প্রশ্ন: মৌর্য সাম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠাতা কে?

উঃ চন্দ্রগুপ্ত মৌর্য। (খ্রিস্টপূর্ব ৩২৮ অব্দে তিনি এটি প্রতিষ্ঠা করেন)

প্রশ্ন: ভারতীয় উপমহাদেশের প্রথম সাম্রাজ্যের (বা হিন্দু সাম্রাজ্যের) প্রতিষ্ঠাতা কে?

উঃ চন্দ্রগুপ্ত মৌর্য।

প্রশ্ন: মৌর্য সাম্রাজ্যের শেষ সম্রাট কে ছিলেন?

উঃ বৃহদ্রথ।

প্রশ্ন: প্রাচীন ভারতের সর্বপ্রথম সর্বভারতীয় সম্রাট কে ছিলেন?

উঃ চন্দ্রগুপ্ত মৌর্য।

প্রশ্ন: ভারতবর্ষ থেকে কোন রাজা গ্রিকদের বিতাড়িত করেন?

উঃ মৌর্য সাম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠাতা চন্দ্রগুপ্ত মৌর্য।

প্রশ্ন: চন্দ্রগুপ্ত মৌর্যের রাজধানী কোথায় ছিল?

উঃ পাটলীপুত্রে।

প্রশ্ন: ‘কৌটিল্য তথা ‘চাণক্য কার মন্ত্রী ও উপদেষ্টা ছিলেন?

উঃ চন্দ্রগুপ্ত মৌর্যের।

প্রশ্ন: ‘অর্থশাস্ত্র’ গ্রন্থটির লেখক কে?

উঃ কৌটিল্য। [কৌটিল্য এর আসল নান ছিল ‘চাণক্য’]

প্রশ্ন: চন্দ্রগুপ্ত মৌর্যের মৃত্যুর পর সিংহাসন আরােহণ করেন কে?

উঃ বিন্দুসার।

প্রশ্ন: সম্রাট অশােকের পিতার নাম কী?

উঃ বিন্দুসার।

প্রশ্ন: সম্রাট অশােক কোন বংশের সম্রাট ছিলেন?

উঃ মৌর্য রাজবংশ।

প্রশ্ন: সর্বপ্রথম হস্তলিপির প্রচলন শুরু হয় কার আমলে?

উঃ সম্রাট অশােকের আমলে।

প্রশ্ন: ব্রাহ্মী ও খরােষ্ঠী লেখার প্রচলন শুরু হয় কার আমলে?

উঃ সম্রাট অশােকের আমলে।

প্রশ্ন: কোন যুদ্ধের ভয়াবহতা দেশে সম্রাট অশােক বৌদ্ধ ধর্ম গ্রহণ করেন?

উঃ কলিঙ্গ যুদ্ধ

প্রশ্ন: কোন সম্রাটের শাসনামলে বৌদ্ধ ধর্ম রাজধর্ম হিসেবে রাষ্ট্রীয়ভাবে স্বীকৃতি লাভ করে?

উঃ সম্রাট অশােকের আমলে।

প্রশ্ন: কার প্রচেষ্টায় বৌদ্ধ ধর্ম বিশ্ব ধর্মের মর্যাদা লাভ করে?

উঃ সম্রাট অশােকের ।।

প্রশ্ন: মৌর্য যুগে বাংলার প্রাদেশিক রাজধানী কোথায় ছিল?

উঃ পুণ্ড্রনগর।

প্রশ্ন: আর্যদের আগমনের পূর্বে বাংলায় কাদের শাসন ছিল?

উঃ মৌর্যদের।

গুপ্ত সাম্রাজ্য

প্রশ্ন: গুপ্ত বংশের প্রতিষ্ঠাতা কে?

উঃ প্রথম চন্দ্রগুপ্ত
( ‘মৌর্য বংশ’ বা ‘মৌর্য সাম্রাজ্য এর প্রতিষ্ঠাতা হলেন- চন্দ্রগুপ্ত মৌর্য;
অন্যদিকে, ‘গুপ্ত বংশ বা ‘গুপ্ত সাম্রাজ্য’ এর প্রতিষ্ঠাতা হলেন- প্রথম চন্দ্রগুপ্ত।)

প্রশ্ন: গুপ্ত বংশের শ্রেষ্ঠ রাজা কে?

উঃ সমুদ্রগুপ্ত।

প্রশ্ন: কোন সম্রাটকে ‘ভারতীয় নেপােলিয়ন’ বলা হত?

উঃ সমুদ্রগুপ্তকে।

প্রশ্ন: সমুদ্রগুপ্ত ‘কথিরাজ’ উপাধি লাভ করেন কীভাবে?

উঃ কাব্য রচনা করে।

প্রশ্ন: মহাকবি কালিদাস কোন রাজার সভাকবি ছিলেন?

উঃ দ্বিতীয় চন্দ্রগুপ্ত।
তিনি গুপ্ত যুগের কবি ছিলেন।
ঐ সময় তিনি ‘মেঘদূত’ নামে একটি মহাকাব্য রচনা করেন।

প্রশ্ন: প্রাচীন ভারতীয় উপমহাদেশের স্বর্ণযুগ বলা হয় কোন শাসনামলকে?

উঃ গুপ্ত শাসনের যুগকে।
(আর বংলার মুসলিম শাসনের স্বর্ণযুগ বলা হয়- আলাউদ্দিন হােসেন শাহের শাসনামলকে।)

প্রশ্ন: সর্বপ্রথম কোন চীনা পরিব্রাজক ভারতবর্ষে আগমন করেন?

উঃ ফা-হিয়েন।

প্রশ্ন: ফা-হিয়েন কার সময়ে ভারতবর্ষ পরিভ্রমণ করেন?

উঃ দ্বিতীয় চন্দ্রগুপ্ত।

প্রশ্ন: ফা-হিয়েনের ভারত পরিভ্রমণের কারণ কী ছিল?

উঃ বৌদ্ধ ধর্মপুস্তক ‘বিনায়াপিটক’ এর মূল রচনা সংগ্রহ করা।

প্রশ্ন: চীনা বৌদ্ধ পণ্ডিত ‘হিউয়েন সাং’ ভারতে আসেন কোন রাজার আমলে?

উঃ হর্ষবর্ধন।

প্রশ্ন: কখন সম্রাট আলেকজান্ডার ভারতবর্ষে আগমন করেন?

উঃ খ্রিস্টপূর্ব ৩২৭ অব্দে।

প্রশ্ন: আলেকজান্ডারের গৃহশিক্ষক কে ছিলেন?

উঃ এরিস্টটল।

প্রশ্ন: ‘মহারাজাধিরাজ’ পদবি কারা গ্রহণ করেন?

উঃ গুপ্ত সাম্রাজ্য ভাঙনের ফলে বাংলায় দুটি স্বাধীন রাজ্যের উত্থান ঘটে। তার একটির নাম ‘বঙ্গ রাজ্য এবং অন্যটির নাম গৌড় রাজ্য’। স্বাধীন বঙ্গ রাজ্যের বিখ্যাত তিন রাজার ‘গােপচন্দ্র, ধর্মাদিত্য ও ‘সমাচারদেব; ‘মহারাজাধিরাজ উপাধি গ্রহণ করেছিলেন।

গৌড় শাসন

প্রশ্ন: গৌড় রাজ্য প্রতিষ্ঠিত হয়?

উঃ ৬০৬ সালে।

প্রশ্ন: কে স্বাধীন গৌড় রাজ্য প্রতিষ্ঠা করেন?

উঃ শশাঙ্ক।

প্রশ্ন: কে গৌড়ের স্বাধীন নরপতি ছিলেন?

উঃ শশাঙ্ক।

প্রশ্ন: গৌড় বংশের শক্তিশালী রাজা কে ছিলেন?

উঃ শশাঙ্ক।

প্রশ্ন: গৌড় রাজ্যের রাজধানীর নাম কি ছিল?

উঃ কর্ণসুবর্ণ

প্রশ্ন: রাজা শশাঙ্ক কোন উপাধি ধারণ করে গৌড়ের সিংহাসন আরােহণ করেন?

উঃ রাজাধিরাজ।

প্রশ্ন: শশাঙ্কের উপাধি কী ছিল?

উঃ মহাসামন্ত।

প্রশ্ন: হিউয়েন সাঙ কাকে বৌদ্ধধর্মের নিগ্রহকারী হিসেবে অভিহিত করেছেন?

উঃ শশাংঙ্ককে।

প্রশ্ন: শশাঙ্কের পর গৌড় রাজ্য কে দখল করেন?

উঃ হর্ষবর্ধন।

পাল বংশ

প্রশ্ন: বাংলার দীর্ঘস্থায়ী রাজবংশ কোনটি?

উঃ পাল বংশ।

প্রশ্ন: পাল বংশের রাজাগণ বাংলায় কত বছর রাজত্ব করেছেন?

উঃ প্রায় চারশ বছর।

প্রশ্ন: পাল রাজারা কোন ধর্মালম্বী ছিলেন?

উঃ বৌদ্ধ।

প্রশ্ন: পাল বংশের প্রতিষ্ঠাতা কে?

উঃ গােপাল।

প্রশ্ন: পাল বংশের শ্রেষ্ঠ রাজা কে?

উঃ ধর্মপাল।

প্রশ্ন: পাল বংশের শেষ রাজা কে?

উঃ মদনপাল।

প্রশ্ন: নওগাঁ জেলার পাহাড়পুরে অবস্থিত ‘সােমপুর বিহার -এর প্রতিষ্ঠাতা কে?

উঃ ধর্মপাল ।

প্রশ্ন: বাংলা সাহিত্যের আদি নিদর্শন কোন রাজবংশের আমলে রচিত হয়?

উঃ পাল বংশ।

প্রশ্ন: বাংলায় ‘উদীয়মান প্রতিপত্তির যুগ বলা হয় কার শাসনামলকে?

উঃ পাল বংশের রাজা ধর্মপাল ও দেবপালের শাসনামলকে।

প্রশ্ন: ‘উদীয়মান প্রতিপত্তির যুগ এর অবসান ঘটে কখন?

উঃ পাল বংশের রাজা দেবপালের মৃত্যুর সঙ্গে সঙ্গে।

প্রশ্ন: গৌড় রাজ্যের নাম-ডাক বেশি ছিল কোন আমলে?

উঃ পাল আমলে।

প্রশ্ন: দেব রাজবংশের রাজাদের রাজধানী নাম কী ছিল?

উঃ দেবপর্বত।

সেন বংশ

প্রশ্ন: সেন বংশের প্রথম রাজা ও প্রতিষ্ঠাতা কে?

উঃ হেমন্ত সেন।

প্রশ্ন: কার শাসনামলে বাংলা সর্বপ্রথম এক শাসনাধীন আসে?

উঃ বিজয় সেনের।

প্রশ্ন: সেন বংশের শ্রেষ্ঠ সম্রাট কে?

উঃ বিজয় সেন।

প্রশ্ন: কৌলিণ্য প্রথার প্রবর্তক কে?

উঃ বল্লাল সেন।

প্রশ্ন: সেন বংশের সর্বশেষ রাজা কে?

উঃ লক্ষ্মণ সেন।

প্রশ্ন: বাংলার শেষ হিন্দু রাজা কে ছিলেন?

উঃ লক্ষ্মণ সেন।

প্রশ্ন: সেন রাজাদের মধ্যে ‘গৌড়েশ্বর উপাধি কার ছিল?

উঃ লক্ষ্মণ সেন।

প্রশ্ন: লক্ষ্মণ সেনের রাজধানী কোথায় কোথায় ছিল?

উঃ নদীয়া।

প্রশ্ন: সেন বংশের অবসান ঘটে কবে?

উঃ ত্রয়ােদশ শতকে।

নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয়

ভারতের সবচেয়ে প্রাচীন বিশ্ববিদ্যালয় হলো ‘নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয়।

‘নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয় ভারতের বিহার রাজ্যের নালন্দা জেলায় অবস্থিত।

এটি মূলত ‘নালন্দা মহাবিহার নামে প্রসিদ্ধ।

বাংলার দীর্ঘস্থায়ী রাজবংশ পাল বংশের শ্রেষ্ঠ রাজা ধর্মপালের পৃষ্ঠপােষকতায় বৌদ্ধধর্মের শিক্ষা ও সংস্কৃতির কেন্দ্র নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয় প্রাণকেন্দ্র হয়ে উঠে।

প্রশ্ন: কোন বাঙালি নালন্দা মহাবিহার/নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যক্ষের পদ অলংকৃত করেন?

উঃ শীলভদ্র।

প্রশ্ন: কার পৃষ্ঠপােষকতায় নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয়’ প্রাণকেন্দ্র হয়ে উঠে?

উঃ রাজা ধর্মপালের পৃষ্ঠপােষকতায়।

মাৎস্যন্যায়

৫০-৭৫০ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত ১০০ বছর সময়কাল বাংলায় ‘মাৎস্যন্যায় বলা হয়।

৬৫০ খ্রিস্টাব্দে রাজা শশাঙ্কের মৃত্যুর পর থেকে ৭৫০ খ্রিস্টাব্দে পাল রাজবংশের অভ্যুদয়ের পূর্ব পর্যন্ত এই ১০০ বছর বাংলার শাসনব্যবস্থায় যােগ্য কোনাে শাসক না থাকায় চরম অরাজকতা ও বিশৃঙ্খলাপূর্ণ অবস্থা বিরাজ করছিল, তা-ই ‘মাৎস্যন্যায় নামে পরিচিত।

আর এ ঘটনাটি ঘটেছিল পাল তাম্র শাসন আমলে।

প্রশ্ন: মাৎস্যন্যায় বলতে কী বােঝায়?

উঃ চরম অরাজকতা ও বিশৃঙ্খলাপূর্ণ অবস্থা।

প্রশ্ন: “মাৎস্যন্যায় কোন শতকে ঘটেছিল?

উঃ সপ্তম শতাব্দীর মাঝামাঝি থেকে অষ্টম শতাব্দীর মাঝামাঝি পর্যন্ত।

প্রশ্ন: ‘মাৎস্যন্যায়’ কত বছর বিদ্যমান ছিল?

উঃ ১০০ বছর।

প্রশ্ন: ‘মাৎস্যন্যায় কোন শাসন আমলে দেখা দেয়?

উঃ পাল তাম্র শাসন আমলে।

নোট-মোস্তাফিজার মোস্তাক 

 

 

Check Also

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সংক্ষিপ্ত জীবনী

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সংক্ষিপ্ত জীবনী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনী থেকে কেবল পরীক্ষায় আসার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *