জীবনানন্দ দাশ

জীবনানন্দ দাশ

➡️জীবনানন্দ দাশকে বলা হয়- রূপসী বাংলার কবি, তিমির হননের কবি, ধূসরতার কবি, নির্জনতার কবি।
➡️জীবনানন্দ দাশকে নির্জনতার কবি’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন বুদ্ধদেব বসু।

➡️জীবনানন্দ দাশের মা কুসুমকুমারী দাশও একজন খ্যাতনামা মহিলা কবি ছিলেন।

➡️রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর জীবনানন্দ দাশের কবিতাকে ‘চিত্ররূপময় কবিতা’ হিসেবে অভিহিত করেছেন।

➡️জীবনানন্দ দাশ ট্রামের নিচে চাপা পড়ে আহত হয়ে হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন।

➡️কাব্যগ্রন্থ;ঝরা পালক (জীবনানন্দ দাশের প্রকাশিত প্রথম কাব্যগ্রন্থ), 

রূপসী বাংলা (এই কাব্যগ্রন্থে স্বদেশ প্রীতি ও নিসর্গময়তার পরিচয়। ফুটে ওঠেছে),
ধূসর পাণ্ডুলিপি,
মহাপৃথিবী,
সাত তারার তিমির,
বেলা অবেলা কালবেলা।

➡️উপন্যাস: মাল্যবান, সতীর্থ।

➡️প্রবন্ধ: কবিতার কথা, কেন লিখি।

➡️উল্লেখযােগ্য কবিতা:
বনলতা সেন (তাঁর এই বিখ্যাত কবিতাটি এডগার এলেন পাে এর বিখ্যাত “টু হেলেন কবিতার অবলম্বনে রচিত),
আবার আসিবাে ফিরে,
সুরঞ্জনা।

➡️সংকলন-মোস্তাফিজার মোস্তাক

Check Also

বাংলা সাহিত্যের বিখ্যাত উক্তি ও প্রবক্তা

বাংলা সাহিত্যের বিখ্যাত উক্তি ও প্রবক্তা 📒রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ১। ‘আজি হতে শত বর্ষে পরে কে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *